সোমবার, নভেম্বর ২৮, ২০২২

দৌলতপুরে ভ্রাম‍্যমান আদালতে ৬৩ হাজার ৫শত টাকা অর্থদন্ড ও একটি অবৈধ মোটরসাইকেল ডাম্পিং এর নির্দেশ ভ্রাম্যমান আদালতের

[print_link]
দৌলতপুর মানিকগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
মানিকগঞ্জের দৌলতপুরে মোবাইল কোর্টে জরিমানা সহ একটি অবৈধ মোটরসাইকেল ডাম্পিংয়ের নির্দেশ দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ ইমরুল হাসান।
জানাগেছে, গত সোমবার বিকেলে দৌলতপুর উপজেলার মেইন বাজার বাস স্ট্যান্ড এলাকায় বিভিন্ন ধরনের নিত‍্য প্রয়োজনীয় দোকান সহ আঞ্চলিক মহাসড়কে থানা পুলিশ সশস্ত্র আনসার এবং গ্রাম পুলিশের সহায়তায় দীর্ঘ ৪ ঘন্টা ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইমরুল হাসান।
এ সময়ে বাসস্ট্যান্ড মোড়ের নিকট হতে মালিকানাবিহীন লাল রঙের একটি আরটিআর মোটর সাইকেল আটকের পর জব্দ করে ডাম্পিং এর নির্দেশ দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।
এসময় খোঁজ নিয়ে জানা যায়- কাগজপত্র বিহীন ওই মোটরসাইকেলটি দৌলতপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কদ্দুস দীর্ঘ তিন বছর যাবত ব্যবহার করে আসছিলেন বলে স্থানীয়রা সাংবাদিকদের অবহতি করেন। গাড়িটি গতকাল মোবাইল কোর্টে আটক করলে গাড়িটির বৈধ কাগজপত্র ধারী কোন মালিক খুঁজে না পাওয়ায় মোটরসাইকেলটি ডাম্পিং এর আদেশ দেওয়ার পর ব্যবহৃত মোটরসাইকেলটি মালিক বিহীন হয়ে যায়। ভ্রাম্যমান আদালত মোটরসাইকেলটির বৈধ কোনো মালিকানা খুঁজে না পাওয়া আটকপূর্বক ডাম্পিং এর আদেশ জারি করে। সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮ অনুযায়ী ভ্রাম্যমাণ আদালত দৌলতপুর থানা অফিসার
ইনচার্জ ওসি জাকারিয়া হোসেন কে এ আদেশ প্রদান করে।
সুত্র জানায়,রাস্তায় পাশে থাকা মোটরসাইকেলটির নম্বর প্লেটে লেখা রয়েছে ঢাকা মেট্রো ল- ২১৭২০০ ইঞ্জিন নম্বর C1L2062696. এবং চ্যাসিস নম্বর MD624HC10C2H 17017।
এছাড়াও মোবাইল কোর্ট ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এবং সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮ এর বিভিন্ন ধারায় ১৩টি মামলায় ৬৩ হাজার পাঁচশত টাকা অর্থদণ্ড আরোপ করে নির্বাহী ম‍্যাজেস্টেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইমরুল হাসান।
ঘটনার বিষয়ে দৌলতপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কদ্দুস জানান, মোটর বাইকটি আমার নয়। মোটরসাইকেলটি বাঁচামরার ঘাটু নামের এক ব্যক্তির তিনি কিছুদিনের জন্য আমাকে চালাতে দিয়েছিলেন।
দৌলতপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট আজিজুল হক বলেন, ঘটনার বিষয়ে আমি কিছু জানি না।
এ বিষয়ে দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ ইমরুল হাসান বলেন ‘ আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা এবং অপরাধ প্রতিরোধ কার্যক্রমকে কার্যকর ও অধিকতর দক্ষতার সাথে সম্পাদন করার জন্য মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়। তিনি আরও বলেন, আমাদের এ অভিযান চলমান থাকবে।
আরোও

আলোচিত সংবাদ

error: Content is protected !!