সোমবার, নভেম্বর ২৮, ২০২২

সরকারি জমি দখলমুক্ত করলেন দৌলতপুর উপজেলার ইউএনও

[print_link]
মোঃ রাসেল হোসেন দৌলতপুর প্রতিনিধিঃ
মানিকগঞ্জের দৌলতপুর উপজেলার গত তিন মাসে প্রায় ১২কোটি টাকার জমি দখল মুক্ত করলেন ইউএন ও ইমরুল হাসান।
আজ মঙ্গলবার টেপড়ি বাজারে ২.৮০শতাংশ জমি সর্বশেষ দখল মুক্ত করেন উপজেলা প্রশাসন। এযাবৎ তিন মাসে প্রায় ১২কোটি টাকার জমি দখল মুক্ত করা হয়েছে। এসকল জমি দখল মুক্ত করে প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর নির্মাণ করা হচ্ছে। আর বাকী অংশটুকু খালী রাখা হয়েছে সরকারের প্রয়োজনে এগুলো ব‍্যাবহার করা হবে বলে জানা গেছে।
জানাগেছে-গত তিন মাসে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে দখল মুক্ত করেন প্রশাসন। এ সমস্ত জমি এলাকাবাসী সরকারি জমিতে দোকান পাট উঠিয়ে দখল করে আসছিল সেই জমি গুলো উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইমরুল হাসান নিজ উদ‍্যোগে দখল মুক্ত করেন।একারনে এলাকাবাসী ইউএনও কে ধন‍‍্যবাদ জানান।
আজ ২১ সেপ্টেম্বর টেপড়ি বাজারে দখলকারী আব্দুল মমিন বলেন টেপড়ি বাজারের সাথে ৪০বছর আগে ১৪০ শতাংশ জমি বসটো বিহার,মনতোষ তরফদার ও শেফালি রানী কাছ থেকে ১৪০শতাংশ জমি ক্রয় করে থাকি এর পর থেকে আমি ওই জমি ভোগদখল করে আসছি।কিন্তু হঠাৎ করে কয়েকদিন আগে আমাকে ডিসি অফিস থেকে একটি নোটিশ প্রদান করেন দোকান সরিয়ে নেওয়াার কারনে।নোটিশ পেয়ে ঘরগুলো সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে তবে জমি আমি মেপে দেখেনি।মাপার পর বোঝা যাবে সরকারের না আমার।
এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইমরুল হাসান বলেন একধরনের প্রতারক জোর করে সরকারি জমিতে দোকান পাঠ উঠিয়ে দখল করে আসছিল।আমি বিষয়টি জানতে পেরে পুলিশ,আনসার,গ্রাম পুলিশ ও কর্মকর্তা কর্মচারিদের যৌথ আয়োজনে ভ্রাম‍্যমান আদালত পরিচালনা করতে হয়।এতে প্রায় গত ৩মাসে প্রায় বার কোটি টাকার জমি উদ্ধার খরা হয়।এই জমি দখল মুক্ত করে আশ্রয়ণ প্রকল্পের কাজে প্রায় জমি গুলো ব‍্যাবহার করছি।
আরোও

আলোচিত সংবাদ

error: Content is protected !!