রবিবার, ডিসেম্বর ৪, ২০২২

নড়াইল জেলা পরিষদ নির্বাচনে বিদ্রোহী দু’জনের কেউই মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেননি

[print_link]

নড়াইল প্রতিনিধিঃ জেলা পরিষদ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী জনপ্রিয় না হওয়ায় বিদ্রোহী দু’জনের কেউ মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেননি। শুধুমাত্র সাধারণ-১ আসনের দু’জন সদস্য তাদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছেন। তারা হলেন রায়হান ফারুকী ও মাসুদ রানা। চুড়ান্ত পর্যায়ে জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে তিন প্রার্থী হলেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আ’লীগ মনোনীত অ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস, আ’লীগ বিদ্রোহী লোহাগড়া উপজেলা আ’লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক, লোহাগড়া উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান সৈয়দ ফয়জুল আমীর লিটু এবং ভারপ্রাপ্ত নড়াইল জেলা পরিষদ প্রশাসক (নির্বাচনের কারণে পদত্যাগ করেছেন) মো.সুলতান মাহমুদ। লোহাগড়া উপজেলা আ’লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ ফয়জুল আমীর লিটু আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়নে ২০১৪-২০১৯ সাল পর্যন্ত লোহাগড়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ছিলেন। এছাড়া তিনি লোহাগড়া উপজেলার নোয়াগ্রাম ইউনিয়নের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ভোটাররা সৈয়দ ফয়জুল আমীর লিটুর জনপ্রিয়তার প্রতি সমর্থন দিবেন এমন বলে আশা করা হচ্ছে। বিদ্রোহী ’প্রার্থী সৈয়দ ফয়জুল আমীর লিটু বলেন, আমি তৃনমূলের সাথে থেকে রাজনীতি করি। আমার জনপ্রিয়তা আছে বলেই আমি জেলা পরিষদ নির্বাচনে এসেছি। ইনশাআল্লাহ সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে জয়ী হব। মো.সুলতান মাহমুদ আওয়ামী লীগ রাজনীতির সাথে জড়িত। নির্বচনে আরেক বিদ্রোহী প্রার্থী মো.সুলতান মাহমুদকে ফোন করলে তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। আওয়ামী লীগ মনোনীত জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান প্রার্থী জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস অপর দু’প্রতিদ্বন্দির ব্যাপারে বলেন, দল ঐক্যবদ্ধভাবে এবং সম্মিলিতভাবে তার সাথে রয়েছে। ফলে তার বিজয় সুনিশ্চিত বলে মন্তব্য করেন। সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা নির্বাচন অফিসার মোঃ জসিম উদ্দিন জানিয়েছেন, চেয়ারম্যান পদে কেউ মনোনয়ন প্রত্যাহার করেননি। শুধুমাত্র সাধারণ-১ নং ওয়ার্ডে (কালিয়া) সদস্য পদে ২জন মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছেন। এবার জেলা পরিষদ নির্বাচনে মোট ভোটার ৫৫২জন। ৪টি কেন্দ্রে সকাল ৯টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত ভোটাররা ভোট প্রয়োগ করবেন। এর মধ্যে সদরে ২টি এবং লোহাগড়া ও কালিয়ায় একটি করে কেন্দ্র থাকছে। আগামি ১৭অক্টোবর জেলা পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন খান নিলু বলেন, দলের নেতা-কর্মীরা ঐক্যবদ্ধ রয়েছে। আমাদের বিজয় কেউ ছিনিয়ে নিতে পারবে না। বিদ্রোহীদের বিষয়ে আমরা কেন্দ্রকে জানাব। পরবর্তী সিদ্ধান্ত তারা নেবেন।

আরোও

আলোচিত সংবাদ

error: Content is protected !!