শনিবার, জানুয়ারি ২৮, ২০২৩
Home Blog

যুব সমাজের আইকন একজন মিজানুর রহমান হদয়

মো.নজরুল ইসলামঃমানিকগঞ্জ প্রতিনিধি

“জন্ম হোক যথাতথা কর্ম হোক ভালো, এখন যৌবন যার যুদ্ধে যাওয়ার সময় তার” যৌবনের সম্মিলিত শক্তিই পারে সমাজের সকল প্রকার অনাচার দুরাচার কুসংস্কার দূর করতে। শত মণিষীর এই ধরনের মহান ব্রত ও মুক্তিযুদ্ধের অসাম্প্রদায়িক শোষণ মুক্ত সাংস্কৃতিক চেতনায় বিশ্বাসী সমাজের আদর্শ মানুষদের সংস্পর্শে থেকে একজন মিজানুর রহমান হদয় আজ যুব সমাজের আইকন।

মিজানুর রহমান হদয় মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার নবগ্রাম ইউনিয়নের সরুপাই গ্রামের একটি কৃষিভিত্তিক পরিবারে গত ১৫ নভেম্বর ১৯৯৬ সালে জন্মগ্রহণ করে। সে নবগ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়,নবগ্রাম ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি ও খানবাহাদুর আওলাদ হোসেন কলেজ থেকে ডিগ্রী :বি বি এস এবং সরকারি দেবেন্দ্র কলেজ মানিকগঞ্জ থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রী নিয়ে প্রচলিত সাধারণ চাকরির পেছনে না ঘুরে একজন উদ্যোক্তা ও সেচ্ছাসেবায় সমাজ পরিবর্তনে অনুঘটক হয়ে যুব শক্তিকে উজ্জীবিত করতে নিয়ামকের ভুমিকা পালন করছে। ছাত্র জীবন থেকেই হৃদয়ের মধ্যে লেখাপড়ার পাশাপাশি সেচ্ছাসেবী কাজ তীব্র সাংগঠনিক তৎপরতা লক্ষ্য করা যায়।

তাঁর সাংগঠনিক দক্ষতার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো- সভাপতি ওপেন ফ্রেন্ডস্ ক্লাব,সরুপাই,( মাদক বিরোধী সংগঠন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রানালয় কর্তৃক সম্মাননা স্বারক প্রাপ্ত)। প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি আলোর পথ,নালী (শিশু শিক্ষা মূলক সংগঠন),মানিকগঞ্জ। সাবেক এস আর এম খানবাহাদুর আওলাদ হোসেন রোভার স্কাউট গ্রুপ,আর এম সৃজন ওপের রোভার স্কাউট, সাবেক সমন্বয়ক ইয়ূথ গ্রীণ ক্লাব (পরিবেশ বিষয়ক সংগঠন) ও প্রচার সম্পাদক মানিকগঞ্জ রিপোর্টস ইউনিটি, সমন্বয়ক মানিকগঞ্জ জেলা স্বাস্থ্য অধিকার যুব ফোরাম,মানিকগঞ্জ। উপদেষ্টা হেল্প ফর চাইল্ড বিডি,সদস্য আশক ফাউন্ডেশন,মানিকগঞ্জ। সাবেক সমন্বয়ক ইয়ূথ এন্ডিং হাঙ্গার (দেবেন্দ্র কলেজ শাখা),প্রচার সম্পাদক মানুষের পাশে ইত্যাদি।

সমাজে একজন মিজানুর রহমান হদয় দীর্ঘদিন ধরে পড়াশোনার পাশাপাশি সাংগঠনিক কাজে যোগদানসহ সমাজের প্রান্তিক মানুষের পাশে থাকার লক্ষ্যে ও সামাজিক অবক্ষয় দূরকরণে বিভিন্ন বাধা বিপত্তি পেরিয়ে সামাজিক অনাচার দুরাচার, কুসংস্কার দূর করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার মশাল হাতে নিয়ে একটা বহুত্ববাদী ন্যায্যতার সমাজ বিনির্মানে মিজানুর রহমান হদয় নিষ্ঠার সহিত দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে।

এছাড়াও হদয় ও তার টিম আজীবন মানুষের পাশে থাকার ব্রত নিয়ে একটা সামাজিক সহিংসতা বিরোধী জাগরণ ও সমাজে শান্তি প্রতিষ্ঠা করতে চায়।

ইন্দুরকানীতে সাংবাদিকের উপর হামলা

জালিস মাহমুদ, পিরোজপুর জেলা প্রতিনিধিঃ

পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে কর্মরত এক সাংবাদিকের উপর হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার রাত সাড়ে দশটায় উপজেলার ইন্দুরকানী বাজারে এ ঘটনা ঘটে। আহত সাংবাদিক নাছরুল্লাহ আল কাফী দৈনিক মানবকন্ঠ ও বার্তা বাজার পত্রিকার ইন্দুরকানী উপজেলা প্রতিনিধি হিসাবে কর্মরত আছেন।

জানা যায়, ইন্দুরকানী উপজেলা সদরের ঔষুধ ব্যবসায়ী সিরাজুল ও সাংবাদিক নাছরুল্লাহ’র পাঁচশত টাকা পাওনা নিয়ে কথার কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে উত্তেজিত ঔষুধ ব্যবসায়ী সিরাজুল ও তার ভাই মিরাজুলসহ ৩ থেকে ৪ জন একত্রিত হয়ে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সাংবাদিক নাছরুল্লাহ আল কাফী’র উপর আক্রমণ করেন।এতে নাসরুল্লাহ আল কাফী’র শরীরের বিভিন্ন জায়গায় গুরুতর জখম হয়। পরে আহত অবস্থায় স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

আহত সাংবাদিক নাছরুল্লাহ আল কাফী বলেন, রাতে একজন আহত ব্যক্তিকে নিয়ে ওই ফার্মেসীতে ঔষুধ কিনতে যাই। তখন আমার স্ত্রীর কাছে ৫/৬ শত টাকা পাওয়া নিয়ে ঔষুধ ব্যবসায়ী মিরাজুল ও সিরাজুল আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে । এসময় ঘটনাটির ভিডিও ধারণ করতে গেলে তারা আমার কাছ থেকে মোবাইল ছিনিয়ে নিয়ে মারধর করে।

অভিযুক্ত ঔষুধ ব্যবসায়ী সিরাজুল জানান, সাংবাদিক নাছরুল্লাহ আল কাফী তার স্ত্রীর কাছে সেলাই মেশিনের ৫ শত টাকা পাওয়া নিয়ে কথার কাটাকাটি হয়। পরে নাছরুল্লাহ আল কাফীকে কয়েকটি কিল ঘুষি দিই।

ইন্দুরকানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ এনামুল হক জানান, সাংবাদিক নাছরুল্লাহ আল কাফীর উপর হামলার বিষয় লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

রাজশাহীতে অজ্ঞাত ব্যাক্তির মরদেহ উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

রাজশাহী’র বোয়ালিয়া মডেল থানা এলাকার হযরত শাহমুখদুম (রহঃ) মাজারের সামনে রেইন ট্রি গাছের নিচে একজন অজ্ঞাত পুরুষের লাশ উদ্ধার হয়েছে। অজ্ঞাত ওই পুরুষের বয়স আনুমানিক ৮০ বছর।

বৃহস্পতিবার (২৪ জানুয়ারী) বিকাল ৪ ঘটিকায় বোয়ালিয়া মডেল থানা পুলিশ অজ্ঞাত ব্যাক্তির মরদেহ উদ্ধার করেন।

পুলিশ সুত্রে জানা যায়,অজ্ঞাত মরদেহ উদ্ধার করে লাশ রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। সুরাতহাল রিপোর্ট তৈরি শেষে লাশটি হিমাগারে রাখা হয়েছে।

পুলিশ আরও জানায়, নিহতের পরনে সাদা চেক লুঙ্গি, গায়ে সাদা রঙের পাঞ্জাবি ও মুখে কাঁচাপাকা দাড়ি এবং মোচ আছে। তার পরিচয় স্থানীরা বলতে পারেনি। তাঁর পরিচয় সনাক্তে পুলিশ কাজ করছে। পুলিশের পক্ষে পত্রিকা ও সামাজিক মাধ্যমে অজ্ঞাত লাশের পরিচয় পাওয়ার জন্য বিজ্ঞাপন দেওয়া হয়েছে। পরিচিত কেউ তাকে সনাক্ত করতে পারলে বোয়ালিয়া মডেল থানার ওসির ০১৩২০-০৬১৪৯৯ নম্বরে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।

বোয়ালিয়া মডেল থানার সেকেন্ড অফিস শাকিল আহমেদ জনি বলেন, স্থানীয়দের সংবাদে পুলিশ গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করেন। তিনি স্থানীয়দের বরাত দিয়ে বলেন, মৃত ব্যাক্তি দীর্ঘদিন ধরে মাজারে থাকতেন। দিনের কোন এক ভাগে তার মৃত হয়েছে। প্রাথমিকভাবে এটি স্বাভাবিক মৃত্যু বলেই ধারণা করা হচ্ছে।

শাহজাদপুর পৌর শহর পরিচ্ছন্ন রাখতে ডাস্টবিন বিতরণ

শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর পৌরসভার উদ্দোগে পৌর শহরকে পরিচ্ছন্ন রাখার অংশ হিসেবে নাগরিকদের মাঝে ডাস্টবিন বিতরণ উদ্বোধন করা হয়েছে। বুধবার (১৮ জানুয়ারি) সকাল ১০টায় শাহজাদপুর পৌরসভায় আয়োজিত এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে পৌর মেয়র মনির আক্তার খান তরু লোদী এই ডাস্টবিন বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।

এ সময় অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো. লিয়াকত আলী, পৌরসভার ১নং প্যানেল মেয়র তৌহিদুর রহমান এ্যাপোলো, ২নং প্যানেল মেয়র নাজমুল হোসেন ও ৩নং প্যানেল মেয়র সিলভী পারভীন মিঠু, কনজারভেন্সি ইন্সপেক্টর রাজু আহমেদ সহ অন্যান্য কাউন্সিলর ও কর্মকর্তা কর্মচারীরা।

এডিবির সহায়তায় বর্জ্য সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার লক্ষে সকাল ১০টা থেকে পৌরসাভার নাগরিকদের মাঝে ২০ লিটারের ২টি করে ডাস্টবিন প্রদান করা হচ্ছে। একটি ডাস্টবিনে পচনশীল দ্রব্য ও আরেকটি ডাস্টবিনে অপচনশীল দ্রব্য রাখার নির্দেশনা দেয়া হচ্ছে।

এ সময় পৌর মেয়র মনির আক্তার খান তরু লোদী বলেন, নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে আমি শাহজাদপুর পৌর শহরের উন্নয়ন কাজে আত্মনিয়োগ করি। এরই ধারাবাহিকতায় পৌরসভার রাস্তা ঘাট ও পরিবেশ বর্জ্য মুক্ত রাখতে নাগরিকদের মাঝে ডাস্টবিন বিতরণ করা হলো।

তিনি আরো বলেন, আজ এক হাজার নাগরিকের মাঝে এই ডাস্টবিন বিতরণ করা হচ্ছে। পর্যায়ক্রমে আরও এক হাজার সহ মোট ২ হাজার নাগরিকের মাঝে এই ডাস্টবিন বিতরণ করা হবে।

আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে কেউ হারাতে পারবে না -কৃষিমন্ত্রী

রাজিব হাসান ( নিপু) টাংগাইল জেলা প্রতিনিধি

টাঙ্গাইল দলের নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ থাকলে আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে কেউ হারাতে পারবে না। এছাড়াও আওয়ামী লীগের শক্তি দেশের জনগণ। জনগণকে নিয়েই বিএনপির সকল আন্দোলন মোকাবেলা করা হবে । আজ বৃহস্পতিবার বিকালে টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলার আউশনারা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে কৃষি মন্ত্রী ড.মো.আব্দুর রাজ্জাক এসব কথা বলেন।

এ সময় মন্ত্রী আরো বলেন, আন্দোলনের মাধ্যমে বর্তমান সরকারের পতন ঘটানোর শক্তি বিএনপির নেই। বিগত ১৪ বছরে কোন আন্দোলনে বিএনপি সফল হয়নি, ভবিষ্যতেও সফল হবে না।

সম্মেলনে টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সুভাষ চন্দ্র সাহা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খন্দকার শফি উদ্দিন মনি, সাধারণ সম্পাদক ছরোয়ার আলম খান আবু, পৌর মেয়র সিদ্দিক হোসেন খান প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

error: Content is protected !!